Category Archives: নির্বাচিত হাদীস

গুনাহের প্রতি ঘৃণা ও সম্পর্ক ছিন্ন করা

আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, যে নারী উলকি আঁকে এবং যে আঁকায়, যে নারী চোখের পাতা চেঁছে ফেলে এবং যে চাঁছায়, যে নারী সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার জন্য দাঁত চেঁছে সরু করে এর মাঝে ফাঁক সৃষ্টি করে আল্লাহর সৃষ্টিতে পরিবর্তন সাধন করে – এদের ওপর আল্লাহ তা’আলা অভিশাপ করেছেন। বনু আসাদ গােত্রের উম্মু… Read More »

ফোরাত মধ্যস্থিত স্বর্ণের পর্বত

সহীহ মুসলিম (ই: ফা:) ৭০১২। আবদুল্লাহ ইবনু হারিস ইবনু নাওফাল (রহঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি উবায় ইবনু কা’ব (রাঃ) এর থেকে দাঁড়ানো অবস্থায় ছিলাম। এমতাবস্থায় তিনি বললেন, বিভিন্ন প্রক্রিয়া গ্রহণ করতে মানুষ পার্থিব সম্পদ উপার্জনের কাজে সর্বদা নিয়োজিত থাকবে। আমি বললাম, হ্যাঁ, ঠিকই। তখন তিনি বললেন, আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছি,… Read More »

জামায়াতে নামাজের ফজিলত

হযরত আনাস ইবনে মালেক (রা.) বলেন, রসূলুল্লাহ ﷺ এরশাদ করিয়াছেন, কেউ যদি আল্লাহর উদ্দেশ্যে চল্লিশ দিন তাকবীরে উলার সাথে জামায়াতে সালাত আদায় করে, তবে তাকে দু’টি মুক্তি সনদ লিখে দেয়া হয়। এক- জাহান্নাম হইতে মুক্তির, দুই- নেফাক (মুনাফেকী) হইতে মুক্তির। – জামে তিরমিযী (ইফা) ২৪১ উমর ইবনে খাত্তাব (রাঃ) সূত্রে নবী থেকে থেকে বর্ণিত, যে ব্যাক্তি… Read More »

নবুওয়াতের পদ্ধতিতে খেলাফত কায়েম

হযরত হুজায়ফা ( রাঃ ) থেকে বর্ণিত, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, “নবুওয়াত ব্যবস্থা তোমাদের মাঝে ততদিন থাকবে, যতদিন আল্লাহ তাআলা মঞ্জুর করেন । অতঃপর যখন ইচ্ছা, তখন তিনি তা উঠিয়ে নিবেন। তারপর (রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ওফাতের পর) তোমাদের মাঝে নবুওয়াতের পদ্ধতিতে খেলাফত ব্যবস্থা কায়েম হবে এবং তা আল্লাহ তাআলার যতদিন ইচ্ছা… Read More »

ইমাম মাহদি আসার আগের শেষ নিদর্শন একটা যুদ্ধ

হাদীস ৯৭৩: সাঈদ ইবনুল মুসায়্যিব রাঃ থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, একটা যুদ্ধ হবে । যার শুরুতে থাকবে ছোটদের খেলাধুলার মত । যুদ্ধটি এমন হবে যে , এক দিক দিয়ে থামলে আরেক দিক দিয়ে (যুদ্ধের আগুন) প্রজ্জলিত হয়ে উঠবে। যুদ্ধ শেষ হবে না, এমতাবস্থায় আকাশ থেকে এক সম্বোধনকারী সম্বোধন করে বলবে — অমুক ব্যক্তি নেতা ।… Read More »

স্বামীর আনুগত্য বনাম অবাধ্যতা

জাহান্নামের অধিকাংশ হবে নারী। কারণ দুইটি। এক, তারা অযথা অভিশাপ দেয়। দুই, স্বামীর অবাধ্য হয়। [ মুসনাদে আহমাদঃ৩৫৬৯] নবীজি ﷺ বলেছেন, “যে মহিলা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়বে, রমযানে রোযা রাখবে, লজ্জাস্থান হেফাজত করবে, আর স্বামীর আনুগত্য করবে, কিয়ামতের দিন তাকে বলা হবে তুমি যে দরজা দিয়ে ইচ্ছে জান্নাতে প্রবেশ করতে পার”। [ আত তারগীব ওয়াত… Read More »

সূরা ইয়াসীন-এর ফযীলত

হাদিস ০১। আনাস (রা:) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেনঃ প্রতিটি বস্তুরই অন্তর আছে। কুরআনের অন্তর হল সূরা ইয়াসীন। যে ব্যক্তি সূরা ইয়াসীন পাঠ করবে আল্লাহ্ তা’আলা তার এ পাঠের বিনিময়ে দশ বার কুরআন পাঠ করার সমতুল্য ছওয়াব নির্ধারণ করবেন। – তিরমিযী (ইফা) ২৮৮৬ হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read More »

সূরা কাহফের-এর ফযীলত

হাদিস ০১। আবু দারদা (রা:) থেকে বর্ণিত যে, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেনঃ যে ব্যক্তি সূরা কাহফের প্রথম তিন আয়াত পাঠ করবে সে দাজ্জালের ফিতনা থেকে রক্ষা পাবে। – তিরমিযী (ইফা) ২৮৮৬

সূরা বাকারার ফযিলত

হাদিস ০১। আহমদ ইবন মানী’ (র.)… আবূ মাসউদ আনসারী (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেনঃ যে ব্যক্তি রাত্রে সূরা বাকারার শেষ দুই আয়াত পাঠ করবে তা সে ব্যক্তির জন্য যথেষ্ট হয়ে যাবে। – তিরমিযী (ইফা) ২৮৮১ হাদিস ০২। মুহাম্মাদ ইবন বাশশার (র.)… নুমান ইবন বাশীর (রা.) থেকে বর্ণিত যে নবী ﷺ বলেছেন :… Read More »

হা-মীম আদ দুখান (৪৪) পাঠ এর ফযীলত

হাদিস ০১। আবু হুরাইরা (রা:) থেকে বর্ণিত: তিনি বলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি রাত্রে হা-মীম আদ-দুখান (৪৪) পাঠ করবে সত্তর হাজার ফিরিশতা তার জন্য মাগফিরাতের দুআ করবে। – তিরমিযী (ইফা) ২৮৮৮ হাদিস ০২। আবু হুরাইরা (রা:) থেকে বর্ণিত: তিনি বলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ জুমআর রাতে যে ব্যক্তি হা-মীম আদ্-দুখান (৪৪)… Read More »