হাদীস ও সুন্নাহয় নামাযের পদ্ধতি

By | Sun 27 Safar 1438AH || 27-Nov-2016AD

আমরা যারা হানাফী মাজহাবের নিয়ম অনুযায়ী নামাজ পড়ি, এবং ঠিকমতো এর দলিলগুলো জানি না তারা হয়তো মাঝে মাঝে অন্য কোনো মতের অনুসারী ভাইয়ের কিছু দলিল নির্ভর হাদিস দেখে confusion এ পরে যাই যে আসলে কতখানি সুন্নাহসম্মত আমার নামায। তাদের জন্য নিচের বইখানি একটি আদর্শ বই (খুবই ছোট একটি বই), যাতে পুরা স্পষ্ট বর্ণনা এসেছে কিভাবে আমাদের হানাফীদের নামায শতভাগ সুন্নাহসম্মত। বাস্তবে এমন অনেক উদাহরণ আছে যেখানে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়াসাল্লাম এর জীবদ্দশাতেই সাহাবায়ে কেরাম কয়েকমত গ্রহণ করেছেন এবং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়াসাল্লাম তাদের সবারটাই অনুমতি দিয়েছেন।

মুজতাহিদ ইমামগণ হাদিসের এই বিশাল সাগর থেকেই আমাদের জন্য সুন্নাসম্মত তরিকা রেখা গিয়েছেন যেগুলোকে আমরা মাজহাব বলি, কোনো মায্হাবেই কোনো ইমামের মনগড়া কিছু নাই কোরান এবং হাদিসের দলিল বা ইশারা ব্যতীত। এই বিষয়ে আরো জানতে মুফতি ত্বকী উসমানী সাহেবের “মাযহাব কি এবং কেন?” বইটি পড়তে পারি।

—————————————————————–

00

 

লেখক: মাওলানা আব্দুল মালেক

প্রকাশনীঃ মাকতাবাতুল আশরাফ

সাইজঃ ৬.৬ এম বি

Download from Google Drive

 

 

 

—————————————————————–

আমরা নিজেদের আমল পরিবর্তন করার আগে শুধু একবার ভেবে নেই, আমার অবস্থা কি হবে যখন আমি একটা রেফারেন্স দেখে আমার এতদিনের আমলকে ভুল বলে পরিবর্তন করে ফেললাম অথচ আমার আমলেরও শক্তিশালী দলিল আছে সুন্নাহর আলোকে। নিজের জ্ঞানের অভাবে আমি এই কাজ করে নিজের অজান্তেই আমি কি সুন্নতের অস্বিকারকারী হয়ে গেলাম নাতো?

আরো বিস্তারিত জানতে “নবীজির নামাজ – by মুহাম্মদ ফয়সাল” এই বইখানি আমরা সংগ্রহ করে পড়ে নিতে পারি।

আর পরিশেষে আমরা নিজেরা নিজেদের কম জানা নিয়ে অন্য ভাইদের গোমরাহির তকমা না লাগাই, এবং নিজেদের আমলগুলোর দলিল জানার মাধ্যমে নিজেদের confident বানাই। এবং অন্য ভাইদের মহব্বতের সাথে বুঝায়ে বলি, যে ভাই আমি যে আমল করছি সেটাও আলহামদুলিল্লাহ শতভাগ সুন্নাহসম্মত। হতে পারে আপনারটাও সুন্নাসম্মত তাই আসুন আমরা দাওয়াত তাদেরকেই দেই যাদের দেয়ার প্রয়োজন। নিজেদের ভিতর বিভেদের দেয়াল না করি। মতভেদ থাকতেই পারে আপনার সাথে আমার (সাহাবায়ে কেরামদের মাঝেও এই মতভেদ ছিল) কিন্তু এই মতভেদ কক্ষনো যেন বিচ্ছেদের কারণ না হয়। মুসলমান বিভিন্ন মতের হতে পারে but কখনো তারা বিচ্ছিন্ন হতে পারেনা।

আল্লাহ আমাদের সঠিক বুঝ দান করেন।

 

 

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

4 thoughts on “হাদীস ও সুন্নাহয় নামাযের পদ্ধতি

    1. Jalal Uddin Post author

      জ্বি পারেন ইন-শা-আল্লাহ। আল্লাহ আমাদের সবাইকে সঠিক ও উপকারী ইলম সঠিক ভাবে জানার ও মানার ব্যবস্থা করে দেন।

      Reply
  1. Asr rabi

    আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওবারাকাতুহ ❤
    আমার প্রশ্নের উত্তর জানাবেন দয়া করে
    আমি একটি কোর্স করি যেটি দুঃস্থ দরিদ্র বেকার, জেনারেল
    লাইনে পড়ুয়াদের জন্য এই কোর্সটি যারা কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এ পড়ালেখা করতেসে তাদের জন্য নিষিদ্ধ এখন আমাদের জিনি এই কোর্সের শিক্ষক তিনি জানেন আমি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ি শিক্ষক বলেছেন যদি (যারা কোর্সটি বাস্তবায়ন করেছেন)IR তারা পর্যবেক্ষণ করতে আসেন তাহলে আমরা যেন বলি পড়াশোনা করিনা/আমরা ssc পাশ এমতাবস্থায় এই কোর্স কী আমার করা উচিত হবে?? এই কোর্স শেষে যে অর্থ আমাকে দেওয়া হবে তা নেয়া যাবে???আর এই টাকা নিলে কী অন্যের হক নষ্ট করার শামিল??

    Reply
    1. Jalal Uddin Post author

      আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। বাকি আমাদের এই সাইটটি কোনো অনলাইন মাসালা দেয়ার সাইট নয় বলে সবচেয়ে উত্তম হবে মাসিক আল-কাউসার এর ফতোয়া বিভাগে যোগাযোগ করে জেনে নিলে। যার ফোন নাম্বার সহ অন্যান্য তথ্য নিচের লিংক এ গেলে পাওয়া যাবে।
      https://www.alkawsar.com/bn/about/contact-us/
      আল্লাহ আমাদের সবাইকে সঠিক ও উপকারী ইলম সঠিক ভাবে জানার ও মানার ব্যবস্থা করে দেন।

      Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*