ইমাম মাহদি আসার আগের শেষ নিদর্শন একটা যুদ্ধ

By | Sat 6 Muharram 1443AH || 14-Aug-2021AD

হাদীস ৯৭৩: সাঈদ ইবনুল মুসায়্যিব রাঃ থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, একটা যুদ্ধ হবে । যার শুরুতে থাকবে ছোটদের খেলাধুলার মত । যুদ্ধটি এমন হবে যে , এক দিক দিয়ে থামলে আরেক দিক দিয়ে (যুদ্ধের আগুন) প্রজ্জলিত হয়ে উঠবে। যুদ্ধ শেষ হবে না, এমতাবস্থায় আকাশ থেকে এক সম্বোধনকারী সম্বোধন করে বলবে — অমুক ব্যক্তি নেতা । আর ইবনুল মুসায়্যিব তার দুই হাত গুটালেন , ফলে তার হাত দুটো সংকুচিত হয়ে গেল । অতঃপর তিনবার বললেন — সেই আমির বা নেতাই সত্য । . নোটঃ সুবহানাল্লাহ ! আল্লাহ এবং তার রাসুলের বাণী কত যথাযোগ্য সত্য ! যদি এই হাদিসের বাস্তবরূপ দেখতে হয় বা এই হাদিসেও যদি কোনো বাস্তব চরিত্র থেকে থাকে (বর্তমান সময় পর্যন্ত), তবে হয়তো তা এই সিরিয়ার যুদ্ধ । হাদিসে যা বলা হয়েছে , এ যুদ্ধেই ঠিক এমনটি হয়েছে । আপনারা যারা খোঁজখবর রাখেন , তারা হয়তো বলতে পারবেন , এই সিরিয়ার যুদ্ধ শুরু হয়েছিল কিছু বাচ্চাদের খেলাধুলাকে কেন্দ্র করে । আমরা কথাটি আগেও ইঙ্গিত করে বলেছি আসাদ গোষ্ঠীর পরিচয় দিতে গিয়ে । . বিবিসির ‘ইতিহাসের সাক্ষী‘ নামক যে ম্যাগাজিনটি করে, সেখানে তারা এই যুদ্ধ শুরু হওয়ার ইতিবৃত্ত নিয়ে একটি ম্যাগাজিন করে । সেখান থেকে জানা যায় , সিরিয়ার কিছু বাচ্চা বাশার আল আসাদকে কোনো প্রকারের সম্মান না দেখিয়ে খেলার ছলে দেওয়ালে একটি লেখা লেখে , যেখানে তারা বলে , “ বাশার তোমাকে চলে যেতে হবে । অর্থাৎ ক্ষমতা ছাড়তে হবে । ” আর বাশার আল আসাদের নিয়ম বা সিরিয়ার নিয়ম ছিল , প্রেসিডেন্টের নাম সরাসরি উল্লেখ করা যাবে না , তার আগে কিছু সম্মানজনক শব্দ যোগ করতে হবে । যেমন প্রেসিডেন্ট বা মহামান্য এমনকিছু ; কিন্তু তারা তা না করে তাকে তাচ্ছিল্য করে দেয়াল রাইটিং করে । এতে তাদেরকে পুলিশ গ্রেফতার করে নিয়ে । যায় এবং ঘটনাক্রমে একজনকে হত্যা করে ফেলে। মানুষ ফুসে ওঠে এবং তাকে নিয়ে মিছিল আন্দোলন শুরু করে , এভাবেই সেখানে যুদ্ধের সূত্রপাত হয় । বিচক্ষণ পাঠক এ ব্যাপারে খোঁজখবর নিয়ে দেখতে পারেন । . হাদিসের পরের অংশও এমনই । এই সিরিয়ার একদিকে যুদ্ধ স্তিমিত হলে অন্যদিক থেকে তা জ্বলে উঠছে । একসময় প্রায় এই যুদ্ধ শেষ হতে চলেছিল , কিন্তু তা আবার শুরু হয় । ইসলামের সৈনিকগণ তা আরও ভিন্নমাত্রা দেয় । আবার আমেরিকা চলে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর তুর্কিদের তাতে হস্তক্ষেপ এ যুদ্ধকে আর প্রলম্বিত করছে । . আমরা আরেকটি হাদিসে পূর্বে পড়ে এসেছি যে , এ যুদ্ধ বারো বছর স্থায়ী হবে । ২০১১ সালে এ যুদ্ধ শুরু , তাই হাদিস অনুসারে তা ২০২৩ সাল নাগাদ শেষ হওয়ার কথা । আসলে শেষ নয় অন্যরূপ নেওয়ার কথা । যা আমরা পড়েছি যে , তারপর ফুরাত নদীতে স্বর্ণের পাহাড় দেখা দেবে । আর তারপরেই ইমাম মাহদির আগমন হবে । এবার তবে এসবকে একটু মিলিয়ে দেখার দরকার ঈমানদারদের । . 📖 কিতাবুল ফিতান খন্ড ০২

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*