আলেমদের সাবধানতা বিষয়ক কিছু হাদিস

By | Sun 25 Rabi Al Thani 1441AH || 22-Dec-2019AD

*** হাদিসগুলো তাফসীর ইবনে কাছির এর সূরা বাকারার ৪৪ নং আয়াতের তাফসীর থেকে সংগৃহিত ***

তিবরানী (রঃ)-এর মুজিম কাবীর’-এ আছে যে, রাসূলুল্লাহ (সঃ) বলেছেনঃ  “যে আলেম জনগণকে ভাল কথা শিক্ষা দেয় কিন্তু নিজে আমল করে না তার দৃষ্টান্ত ঐ প্রদীপের মত যে লােক তার আলাে দ্বারা উপকার লাভ করে কিন্তু তা নিজে পুড়ে থাকে।” 


মুসনাদ-ই-আহমাদের হাদীসে আছে যে, রাসূলুল্লাহ (সঃ) বলেছেনঃ মিরাজের রাত্রে আমি দেখেছি যে, কতকগুলাে লােকের ওষ্ঠ আগুনের কাঁচি দ্বারা কাটা হচ্ছে। আমি জিজ্ঞেস করলাম যে, এরা কারা? তখন আমাকে বলা হলাে যে, এরা আপনার উম্মতের বক্তা, উপদেশ দাতা ও আলেম। এরা মানুষকে ভাল কথা শিক্ষা দিতাে কিন্তু নিজে আমল করতাে না, জ্ঞান থাকা সত্ত্বেও বুঝতাে না। অন্য হাদীসে আছে যে, তাদের জিহ্বা ও ওষ্ঠ উভয়ই কাটা হচ্ছিল।


আবু কাল (রঃ) বলেন যে, একদা হযরত উসামা (রাঃ) বলেনঃ আমি রাসূলুল্লাহ (সঃ)কে বলতে শুনেছি যে, কিয়ামতের দিন একটি লােককে আনা হবে এবং তাকে দোযখে নিক্ষেপ করা হবে। তার নাড়ীভূঁড়ি বেরিয়ে আসবে এবং সে তার চারদিকে ঘুরতে থাকবে। অন্যান্য দোযখবাসীরা তাকে জিজ্ঞেস করবেঃ জনাব আপনি তাে আমাদেরকে ভাল কাজের আদেশ করতেন এবং মন্দ কাজ হতে নিষেধ করতেন, আপনার এ অবস্থা কেন?’ সে বলবেঃ ‘আফসােস! আমি তােমাদেরকে বলতাম কিন্তু নিজে আমল করতাম না। আমি তােমাদেরকে বিরত রাখতাম কিন্তু নিজে বিরত থাকতাম না। (মুসনাদ-ই-আহমাদ)। সহীহ বুখারী ও সহীহ মুসলিমের মধ্যেও এ বর্ণনাটি আছে।


মুসনাদের আরাে একটি হাদীসে আছে যে, আল্লাহ তা’আলা অশিক্ষিতদেরকে যত ক্ষমা করবেন তত ক্ষমা তিনি শিক্ষিতদেরকে করবেন না। কোন কোন হাদীসে এটাও আছে যে, আলেমকে যদি একবার ক্ষমা করা হয় তবে সাধারণ লােককে সত্তর বার ক্ষমা করা হবে। বিদ্বান ও মূর্খ এক হতে পারে না। কুরআন মাজীদে আছেঃ যারা জানে ও যারা জানে না তারা কি সমান হতে পারে? উপদেশ তাে জ্ঞানীরাই গ্রহণ করে থাকে। ইবনে আসাকীরের কিতাবের মধ্যে আছে যে, রাসূলুল্লাহ (সঃ) বলেছেনঃ জান্নাতবাসীরা জাহান্নামবাসীরদেরকে দেখে বলবে-আপনাদের উপদেশ শুনেই তাে আমরা জান্নাতবাসী হয়েছি, আপনারা জাহান্নামে এসে পড়েছেন কেন? তারা বলবে-আফসােস! আমরা তােমাদেরকে বলতাম বটে, কিন্তু নিজেরা আমল করতাম না।


তিবরানীর একটি হাদীসে আছে যে, রাসূলুল্লাহ (সঃ) বলেছেনঃ “যে জনগণকে কোন কথা বা কাজের দিকে আহ্বান করে এবং নিজে করে না, সে আল্লাহ্র ক্রোধ ও অসন্তুষ্টির মধ্যে অবস্থান করে যে পর্যন্ত না সে নিজে তার আমলে লেগে যায়।”

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*