Featured Article

ফরয নামাজের পর পঠিত কিছু দুআ ও যিকির

হাদিস ০১। বিশর ইবনু খালিদ আসকরী (রহঃ) … ইবনু আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সালাত শেষ হওয়া জানতে পারতাম তাকবীরের দ্বারা (আল্লাহু আকবার)।  – সূনান নাসাঈ (ইফাঃ) ১৩৩৮, আবু দাউদ হাঃ (ইফাঃ) ১০০৩   হাদিস ০২। ইবনে হিব্বান রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সূত্রে বর্ণনা করেছেন, “যে ব্যক্তি প্রত্যেক ফরয… Read More »

Featured Article

আইয়ামে বীজের রোযা

হাদিস ১। আবূ হূরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন , আমার বন্ধু (রাসূল ﷺ) আমাকে তিনটি বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন , প্রতি মাসে তিন দিন করে সাওম পালন করা  এবং দু’রাকআত সালাতুয -যুহা এবং ঘুমানোর পূর্বে বিতর সালাত আদায় করা। [বুখারী শরীফ (ইফা) :: হাদিস ১৮৫৭]

Featured Article

নফল রোযা (সোম ও বৃহস্পতিবারের রোযা)

  আবূ কাতাদাহ রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে সোমবার দিনে রোযা রাখা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বললেন, “ওটি এমন একটি দিন, যেদিন আমার জন্ম হয়েছে, যেদিন আমি (নবীরূপে) প্রেরিত হয়েছি অথবা ঐ দিনে আমার প্রতি (সর্বপ্রথম) ‘অহী’ অবতীর্ণ করা হয়েছে।” (মুসলিম) আবূ হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম… Read More »

Featured Article

সকাল সন্ধ্যায় পড়ার দুআ

দুআ ০১। ফজর নামাযের পর ১০ বার  (কারো সাথে কথা বলার পূর্বে) আবূ আইয়াশ আয-যুরাকী (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি ভোরে উপনীত হয়ে বলেঃ لَاۤ إِلٰهَ إِلاَّ اللهُ  وَحْدَهُ  لاَ شَرِيْكَ لَهٗ ,لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ يُحْىٖ وَيُمِيْتُ وَهُوَ عَلٰى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيْرٌ “আল্লাহ ব্যতীত কোন ইলাহ নই, তিনি এক, তাঁর… Read More »

জামায়াতে নামাজের ফজিলত

হযরত আনাস ইবনে মালেক (রা.) বলেন, রসূলুল্লাহ ﷺ এরশাদ করিয়াছেন, কেউ যদি আল্লাহর উদ্দেশ্যে চল্লিশ দিন তাকবীরে উলার সাথে জামায়াতে সালাত আদায় করে, তবে তাকে দু’টি মুক্তি সনদ লিখে দেয়া হয়। এক- জাহান্নাম হইতে মুক্তির, দুই- নেফাক (মুনাফেকী) হইতে মুক্তির। – জামে তিরমিযী (ইফা) ২৪১ উমর ইবনে খাত্তাব (রাঃ) সূত্রে নবী থেকে থেকে বর্ণিত, যে ব্যাক্তি… Read More »

নবুওয়াতের পদ্ধতিতে খেলাফত কায়েম

হযরত হুজায়ফা ( রাঃ ) থেকে বর্ণিত, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, “নবুওয়াত ব্যবস্থা তোমাদের মাঝে ততদিন থাকবে, যতদিন আল্লাহ তাআলা মঞ্জুর করেন । অতঃপর যখন ইচ্ছা, তখন তিনি তা উঠিয়ে নিবেন। তারপর (রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ওফাতের পর) তোমাদের মাঝে নবুওয়াতের পদ্ধতিতে খেলাফত ব্যবস্থা কায়েম হবে এবং তা আল্লাহ তাআলার যতদিন ইচ্ছা… Read More »

ইমাম মাহদি আসার আগের শেষ নিদর্শন একটা যুদ্ধ

হাদীস ৯৭৩: সাঈদ ইবনুল মুসায়্যিব রাঃ থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, একটা যুদ্ধ হবে । যার শুরুতে থাকবে ছোটদের খেলাধুলার মত । যুদ্ধটি এমন হবে যে , এক দিক দিয়ে থামলে আরেক দিক দিয়ে (যুদ্ধের আগুন) প্রজ্জলিত হয়ে উঠবে। যুদ্ধ শেষ হবে না, এমতাবস্থায় আকাশ থেকে এক সম্বোধনকারী সম্বোধন করে বলবে — অমুক ব্যক্তি নেতা ।… Read More »

স্বামীর আনুগত্য বনাম অবাধ্যতা

জাহান্নামের অধিকাংশ হবে নারী। কারণ দুইটি। এক, তারা অযথা অভিশাপ দেয়। দুই, স্বামীর অবাধ্য হয়। [ মুসনাদে আহমাদঃ৩৫৬৯] নবীজি ﷺ বলেছেন, “যে মহিলা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়বে, রমযানে রোযা রাখবে, লজ্জাস্থান হেফাজত করবে, আর স্বামীর আনুগত্য করবে, কিয়ামতের দিন তাকে বলা হবে তুমি যে দরজা দিয়ে ইচ্ছে জান্নাতে প্রবেশ করতে পার”। [ আত তারগীব ওয়াত… Read More »

পরিবার সংশ্লিষ্ট আয়াত সমূহ

সাবধানবাণী আয়াত ০১। হে মুমিনগণ, তোমরা আল্লাহর উদ্দেশে ন্যায় সাক্ষ্যদানের ব্যাপারে অবিচল থাকবে এবং কোন সম্প্রদায়ের শত্রুতার কারণে কখনও ন্যায়বিচার পরিত্যাগ করো না। সুবিচার কর এটাই খোদাভীতির অধিক নিকটবর্তী। আল্লাহকে ভয় কর। তোমরা যা কর, নিশ্চয় আল্লাহ সে বিষয়ে খুব জ্ঞাত। – ০৫:০৮ আয়াত ০২। হে ঈমানদারগণ, তোমরা ন্যায়ের উপর প্রতিষ্ঠিত থাক; আল্লাহর ওয়াস্তে ন্যায়সঙ্গত সাক্ষ্যদান… Read More »

ইসলামী ব্যাংকিং এর উপর আব্দুস সালাম চাটগামী হাফিজাহুল্লার ফতওয়া

বর্তমান সময়ের গুরুত্বপূর্ণ ও ইখতিলাফপূর্ণ মাসায়েলগুলোর ভিতর “ইসলামিক ব্যাংকের লেনদেন বৈধ/জায়েয নাকি অবৈধ/নাজায়েয” একটি। হাটহাজারী মাদ্রাসার মুফতি আব্দুস সালাম চাটগামী হাফিজাহুল্লাহ পাকিস্তানে অবস্থানকালীন সময়ে এবং পরবর্তীতে হাটহাজির সম্মানিত উস্তাদদের সমন্বয়ে এই বিষয়ে একটি দালিলিক ফতোয়া প্রদান করেন যা উনার লিখিত কিতাব “মাকালাতে চাটগামী” বইতে উল্লেখ করেছেন। উত্তরটি আমাদের সবার জানা থাকা দরকার মনে করে সবার… Read More »

মুনাফিকের আলামত

একটু যাচাই করি আমি মুনাফিক কী না!! – মুনাফিকুন! বর্তমানে আমাদের কাফের চেনার চেয়ে বেশি দরকার হলো মুনাফিক চেনা। মুনাফিক শব্দটার অর্থ জীবনের একটা পর্যায়ে এক রকম দ্যেতনা নিয়ে এসেছে। প্রথমভাগে মনে করতাম, তারা মুসলমান তবে একটু দুষ্ট আছে। তারপর মনে হতো: মুনাফিক মানে পাজি ইহুদি। এখন একবার একটা মনে হয়। বেশ কিছু দিন ধরেই… Read More »

মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এক লাখ কালিমা

প্রশ্ন ৩৫৬৭: গত কুরবানী ঈদের আগের দিন আমার এক আত্মীয় মারা যায়। তার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে নির্দিষ্ট এক সংখ্যা পরিমাণ কালিমা পড়া হয়। সম্ভবত ১ লক্ষ পরিমাণ। যে কারণে একে লাখ কালিমা বলা হয়। এ আমলকে এতই গুরুত্ব ও এহতেমামের সাথে পালন করা হয় যে, দ্রুত সম্পন্ন করার লক্ষ্যে জনে জনে তা বণ্টন করে দেওয়া হয় এবং… Read More »

আল্লাহর সাথে মুমিন ও কাফিরের কথোপকথন

কাফিরের সাথে কথাবার্তা: আলোচনা ০১। আর যারা কাফের হয়েছে, তাদের জন্যে রয়েছে জাহান্নামের আগুন। তাদেরকে মৃত্যুর আদেশও দেয়া হবে না যে, তারা মরে যাবে এবং তাদের থেকে তার শাস্তিও লাঘব করা হবে না। আমি প্রত্যেক অকৃতজ্ঞকে এভাবেই শাস্তি দিয়ে থাকি। সেখানে তারা আর্ত চিৎকার করে বলবে, হে আমাদের পালনকর্তা, বের করুন আমাদেরকে, আমরা সৎকাজ করব, পূর্বে… Read More »

সূরা ইয়াসীন-এর ফযীলত

হাদিস ০১। আনাস (রা:) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেনঃ প্রতিটি বস্তুরই অন্তর আছে। কুরআনের অন্তর হল সূরা ইয়াসীন। যে ব্যক্তি সূরা ইয়াসীন পাঠ করবে আল্লাহ্ তা’আলা তার এ পাঠের বিনিময়ে দশ বার কুরআন পাঠ করার সমতুল্য ছওয়াব নির্ধারণ করবেন। – তিরমিযী (ইফা) ২৮৮৬ হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read More »